বাম-কংগ্রেসের ডাকা সাধারন ধর্মঘটে রাজ্যজুড়ে অতিরিক্ত ২২ শতাংশ বাস চালাবে রাজ্য পরিবহণ দফতর

76

ওয়েব ডেস্ক, ৭ জানুয়ারিঃ বাম-কংগ্রেসের ডাকা বুধবারের সাধারন ধর্মঘটের ইস্যুগুলিকে তিনি সমর্থন করলেও কর্মনাশা এই বনধকে তিনি সমর্থন করবেন না ইতিমধ্যেই স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মতো রাজ্য সরকারও বুধবার রাজ্য প্রশাসনকে সচল প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নিয়েছে। ছুটি বাতিল হয়েছে সব রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের।

এবার রাজ্যের পরিবহণকে সচল রাখতে পদক্ষেপ নিল রাজ্য পরিবহণ দফতরও। মঙ্গলবার রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছেন যে, রাজ্য পরিবহণ দফতর বুধবার রাজ্যজুড়ে অতিরিক্ত ২২ শতাংশ বাস চালাবে।ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাধারন দিনে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম ৬০৫টি বাস চালায়। দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম চালায় ৬৯২টি ও পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহণ নিগম ৯০০টি বাস চালায়। এই সংখ্যাটাই বুধবার বাড়ানো হচ্ছে। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম বুধবার ৬৫৫টি, দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগম ৮২৬টি এবং পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহণ নিগম ১১৫০টি বাস চালাবে। সেই সঙ্গে বেসরকারি পরিবহণও যাতে রাস্তায় নামে তার জন্য বিমার ব্যবস্থাও করেছে রাজ্য সরকার।ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানও হয়েছে, রাজ্য পরিবহণ নিগমের কাছে রেজিস্ট্রিকৃত কোনও বাস বা মিনিবাস বুধবার রাস্তায় নেমে ভাঙচুর বা অগ্নিসংযোগের ঘট নায় ক্ষতিগ্রস্থ হলে রাজ্য সরকার ৬ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে। কিন্তু সেই বাস বা মিনিবাসটির বৈধ রেজিস্ট্রেশান সার্টিফিকেট, রুট পারমিট, ফিটনেস সার্টিফিকেট থাকতে হবে। সেই সঙ্গে ড্রাইভারের কাছে রাখতে হবে তাঁর ড্রাইভিং লাইসেন্সও। বনধে সেই বাস বা মিনিবাস ক্ষতিগ্রস্থ হলে ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সংশ্লিষ্ট থানায় গিয়ে এফআইআর করতে হবে আর তার কপি কলকাতার কসবায় থাকা রাজ্য পরিবহণ পরিকাঠামো উন্নয়ন নিগমের কার্যালয়ে জমা দিতে হবে। সঙ্গে দিতে হবে সেই বাস বা মিনিবাসটির বৈধ রেজিস্ট্রেশান সার্টিফিকেট, রুট পারমিট, ফিটনেস সার্টিফিকেট ও ড্রাইভারের ড্রাইভিং লাইসেন্স কপি।