এনআরসি,ক্যা এবং এনপিআরের বিরুদ্ধে পথে নামল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরা

259

ওয়েব ডেস্ক, ১৪ জানুয়ারিঃ এনআরসি ও ক্যা এবং এনপিআরের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে প্রতিবাদ অব্যাহত। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ এমনকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীরাও পথে নেমে মিছিল করেছিল। তার পরেই মঙ্গলবার নজিরবিহীন ঘটনা ঘটল রাজধানীর যন্তর মন্তরে। ক্যা, এনআরসি এবং এনপিআর-এর বিরুদ্ধে পথে নামলেন সর্বোচ্চ আদালতের আইনজীবীরা। এদিন সুপ্রিম কোর্ট থেকে রাজধানীর যন্তর মন্তর পর্যন্ত পদযাত্রা করেন আইনজীবীরা।

অপরদিকে, দিল্লির সংখ্যালঘু কমিশন পুলিশের নৃশংসতার পর্যালোচনা করার জন্য প্রধান বিচারপতির কাছে আবেদন জানিয়েছে। সাম্প্রতিককালে দেশের একাধিক রাজ্যে এনআরসি এবং সিএএ বিরোধী আন্দোলনে পুলিশের কার্যকারিতার বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলেছে কমিশন। ডিএমসির সভাপতি জাফারুল ইসলাম প্রধান বিচারপতি বোবডেকে দেওয়া চিঠিতে বলেন, “আন্দোলনকারীদের প্রতি পুলিশের আচরণ কখনোই মেনে নেওয়া যায়না”। উত্তরপ্রদেশ, কর্ণাটক, অসম, জম্মু-কাশ্মীর, গুজরাট এবং দিল্লিতে আন্দোলনকারীদের উপর পুলিশের হামলার ৮৭টি ঘটনার কথা উল্লেখ করেছেন তিনি।

পাশাপাশি, সোমবার কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সিএএ প্রত্যাহার করার জন্য ফের আবেদন জানান হয়েছে। সেইসঙ্গে এনআরসি এবং এনপিআর বন্ধ করার আবেদন জানিয়েছে কংগ্রেস। নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসি-এনপিআরের বিরুদ্ধে বিরোধী দলগুলির সঙ্গে এক মহাজোট গঠন করেছে কংগ্রেস। এই আইন সংবিধান বিরোধী এবং দরিদ্রদের প্রতি শোষণ বলে সুর চড়িয়েছেন কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা-নেত্রী। মোট ২০ টি বিরোধী দলের সঙ্গে একত্রিত হয়ে বিজেপির এই পদক্ষেপকে “চরম ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতি” বলে উল্লেখ করেছে কংগ্রেস।