অনুমতি দিলেন সুশান্তের বাবা, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে সিবিআই তদন্তের আর্জি জানাল বিহার সরকার

56

ওয়েব ডেস্ক, ৪ আগস্টঃ দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর সুশান্ত রাজপুত-এর অস্বাভাবিক মৃত্যুরহস্য মামলায় সিবিআই তদন্তের আর্জি জানাল বিহার সরকার। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে এই আবেদন জানিয়েছে নীতিশ কুমার সরকার এবং সুশান্তের বাবা কেকে সিংয়ের অনুমতির ভিত্তিতে এই আবেদন করা হয়েছে বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে।

আগেই বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার জানিয়েছিলেন, সুশান্তের বাবা যদি সিবিআই তদন্ত চান তাহলে বিহার সরকার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে আবেদন জানাবে। সেইমত মঙ্গলবার কেকে সিং সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের আর্জি জানিয়ে নীতিশ কুমারের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এরপরেই জেডিইউ মুখপাত্র সঞ্জয় সিং জানান, বিহার সরকারের তরফে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার সুপারিশ করা হল কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে।

রবিবার সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু মামলার তদন্তে মুম্বই গিয়েছেন পাটনা সেন্ট্রালের এসপি বিনয় তিওয়ারি। বৃহন্মুম্বই পৌরসভার বিরুদ্ধে অভিযোগ, সেদিনই ‘জোর করে’ বিনয় তিওয়ারিকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন বিহার পুলিশের ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে।

বিহার পুলিশের ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডের অভিযোগ নিয়ে সোমবার মুখ খুলেছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার। অসন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, “এটা ঠিক নয়। বিহার পুলিশ দায়িত্ব পালন করেছে”।

এও জানিয়েছেন, “বিষয়টি রাজনৈতিক নয়। বিহার পুলিশ শুধুমাত্র আইনি দায়িত্ব পালন করছে”। আত্মহত্যায় প্ররোচনা সহ একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে। জুলাই মাসের ২৮ তারিখ সুশান্তের বাবা কেকে সিং পাটনায় এফআইআর করেছেন রিয়া চক্রবর্তী সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলা পাটনা থেকে মুম্বইতে সরিয়ে আনার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। তার প্রেক্ষিতে বিহার পুলিশ ও সুশান্তের বাবা কেকে সিং ক্যাভিয়েট দাখিল করেছেন।

এই মামলার তদন্ত পাটনা পুলিশ করতে পারবে কিনা সেই বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন হলেও আইন অনুযায়ী বিহার সরকারের সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে এই মামলার তদন্তভার সিবিআইকে দেওয়ার সুপারিশ জানানোর জন্য। এর কারণ সুশান্তের মৃত্যুর পর এই মামলার তদন্তের জন্য প্রথম এবং এখনও পর্যন্ত একমাত্র এফআইআর দায়ের করা হয়েছে বিহার পুলিশের কাছেই।

তবুও নীতিশ কুমার অপেক্ষা করছিলেন সুশান্তের পরিবারের অনুমতির জন্য। অনুমতি পাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই এই মামলার তদন্তভার সিবিআই এর কাছে তুলে দেওয়ার সুপারিশ জানালো বিহার সরকার। এখন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন সকলে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে সিলমোহর করে দিলেই শুরু হয়ে যাবে সুশান্তের অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলার সিবিআই তদন্ত।