ছড়াল বাঘের আতঙ্ক, বিনপুরে মালাবতীর জঙ্গলে পাতা হল খাঁচা

32

কার্ত্তিক গুহ, ঝাড়গ্রামঃ বিনপুরের মালাবাতীর জঙ্গল লাগোয়া এলাকায় বাঘের আতঙ্ক ছড়ানোয় সুন্দরবন থেকে আনা হল বাঘ বিশেষজ্ঞদের একটি প্রতিনধি দল। পাশাপাশি আজনা জন্তুটিকে ধরার জন্য  জঙ্গল লাগোয়া কংসাবতী ক্যানেলে বসানো হল খাঁচাও। খাঁচায় টোপ হিসেবে রাখা হয়েছে একটি ছাগল। তবে বাঘের আতঙ্ক ছড়ালেও বন্য জন্তুটি বাঘই কিনা, তা এখনও বনদপ্তর নিশ্চিত করতে পারেনি। অজানা জন্তুটির হদিশ পেতে জঙ্গলে ট্র্যাপ ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে এলাকায় বাঘের আতঙ্কের জেরে সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মানুষজন। তাঁদের সচেতন করার জন্য মালাবতী জঙ্গল লাগোয়া আশেপাশের জঙ্গলগুলিতে শুরু হয়েছে মাইকিং। ঝাড়গ্রামের ডিএফও বাসবরাজ হেলোইচ্চি বলেন, সুন্দরবন থেকে চারজন কর্মী এসেছেন। এদিন একটি খাঁচা পাতা হচ্ছে। ট্র্যাপ ক্যামেরা এলে তা লাগানো হবে। কিসের পায়ের ছাপ, সে বিষয়ে পরিষ্কার না হলেও আমরা কোনও ঝুঁকি নিচ্ছি না। সাধারণ মানুষজন এবং বাঘের নিরাপত্তার বিষয়টি আমরা গুরুত্ব দিয়ে দেখছি।

এদিন সকাল থেকেই সুন্দরবনের চারজন বাঘ বিশেষজ্ঞ জঙ্গলের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। সুন্দরবন থেকে আনা হয়েছে বাঘ ধরার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মী ও খাঁচা। এদিন বিকেলে পাতা হয়েছে একটি খাঁচা। গ্রামগুলিতে বাঘের ছবি দেখিয়ে এদিন গ্রামবাসীদের সচেতন করে একটি স্বেচ্ছসেবী সংস্থা। কাঁকো গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে মাইকিংও করা হয়। এদিন বনদপ্তরের পাশাপাশি বিনপুর থানার পুলিসও বাঘ নিয়ে মানুষজনের কাছে সচেতনতা-প্রচার চালায়।

এডিএফও আশিস মণ্ডল বলেন, জন্তুটি কী, তা এখনও পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে না। সুরক্ষার জন্য খাঁচা পেতে রাখছি। গ্রামবাসীদের সর্তক করা হচ্ছে। তবে এখানে একটি অজানা জন্তু রয়েছে।