মাথাভাঙ্গার প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হল বৈরাগীরহাট গ্রাম পঞ্চায়েতে

111

কাজল রায়,মাথাভাঙ্গাঃ পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগে মাথাভাঙার ১ নং ব্লকের ব্লকস্তরীয় ও প্রশাসনিক পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হল বৈরাগীরহাট গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অশোকবাড়ি এপি স্কুলের মাঠে।

মঙ্গলবারের এই সভায় উপস্থিত ছিলেন, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণী কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন, জেলা পরিষদের সভাধিপতি উমাকান্ত বর্মন, জেলাশাসক পবন কার্ডিয়ান, শীতলখুচির বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক হিতেন বর্মন, মাথাভাঙার মহকুমাশাসক জিতিন যাদব, মাথাভাঙা ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির সভানেত্রী সুজাতা বর্মন, পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ , স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানেরা। এদের রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কাজের পর্যালোচনা হয়।

এদিনের এই সভায় উৎকর্ষ বাংলা, কন্যাশ্রী, রুপশ্রী, কৃষক বন্ধু, স্বাস্থ্য সাথী, খাদ্য সাথী, ১০০ দিনের কাজ, বাংলার আবাস যোজনা, বাংলার গ্রামীণ সড়ক যোজনা, মিশন নির্মল বাংলা, সবুজ সাথী, ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। এই আলোচনায় মন্ত্রী বিধায়ক, জনপ্রতিনিধি, এবং আধিকারিকদের সঙ্গে দ্রুততার সঙ্গে কাজের সমন্বয় ঘটিয়ে কাজ করার আলোচনা হয়। এই সভায় বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। উন্নয়নে কাজ যাতে দ্রুততার সঙ্গে শেষ করা যায় সে বিষয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়। উন্নয়নের কোন কাজ ফেলে রাখা যাবে না।

এদিনের সভায় বিভিন্ন দপ্তর ধরে ধরে আলোচনা হয়। ব্লকে কোন ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র এখনো নেই সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। সভায় জেলাশাসক আধিকারিকদের কিছু বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন। এই সভায় মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে কিছু অভিযোগ তুলে ধরেন বলে জানা যায়। এ ধরনের কোনো অভিযোগ যাতে না আসে সে বিষয়ে জেলাশাসককে বিষয়টি দেখার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।