ক্যা বিরোধী মহামিছিল তৃণমূলের

150

কোচবিহার, ৭ জানুয়ারীঃ ক্যা বিরোধী মহামিছিলে পা মেলালেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। মঙ্গলবার কোচবিহারে রাজ পথে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে জনমত গঠন করতে মহামিছিল সংগঠিত করে তৃণমূল কংগ্রেস। এইদিনের তৃণমূলের এই কর্মসূচীতে দলীয় কর্মীদের অংশ গ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। জেলার বিভিন্ন প্রান্তের দলীয় কর্মীরা দলে দলে শহরের রাসমেলার মাঠে জমায়ত হয়ে পরে শহর জুড়ে মিছিলে পরিক্রমা করে। নো এনআরসি, নো ক্যা, নো এনপিআর এই স্লোগানকে সামনে রেখে এই মিছিল হয়।

ক্যা ও এনআরসি ইস্যুকে সামনে এনে গোটা বাংলা সাথে কোচবিহারেও সম্মুখ ও সমরে নেমেছে তৃণমূল ও বিজেপি। পদ্ম ও ঘাস ফুলের এই লড়াই যেন ‘ফুল ফাইটের’ আবহ তৈরি করেছে এই জেলাতে। ক্যা নিয়ে মিছিল পাল্টা মিছিল, কর্মসূচী পাল্টা কর্মসূচী চলছেই। সম্প্রতি ক্যা-র পক্ষে কোচবিহার শহরে মিছিল সংগঠিত করে বিজেপি। সেদিনের সেই মিছিলে বহু দলীয় কর্মী সমর্থকদের অংশ গ্রহণ করে। কার্যত সেই মিছিলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে এদিন মিছিল সংগঠিত করা হয়।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সম্বন্ধে মানুষকে সচেতন করতে ঘরে ঘরে পৌঁছাবার কর্মসূচী শুরু করেছে বিজেপি। ইতিমধ্যে জনসম্পর্ক অভিযান শুরু করে ক্যা-র পক্ষে বাড়ি বাড়ি প্রচার শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। হাতে গরম এই ইস্যুতে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে এই জেলার রাজনীতি। তৃণমূল কংগ্রেসও ইতিমধ্যে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ক্যা-র বিরোধিতা করে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। ব্লকে ব্লকে হয়েছে তৃণমূলের বিভিন্ন শাখা সংগঠনের নানা কর্মসূচী। এইদিন মহামিছিলের মধ্য দিয়ে ক্যা ও এনআরসির বিরোধিতা করা হয়। একই সাথে এদিন কোচবিহার জেনকিন্স স্কুল মোড়ে একটি পথ সভাও হয়। সেখানে জেলা নেতারা বাদেও বক্তব্য রাখেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি।

এদিন ওই প্রতিবাদ মিছিলে সুব্রত বক্সী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্র নাথ ঘোষ, বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ, উদয়ন গুহ, পরেশ অধিকারী, পার্থপ্রতিম রায়, অর্ঘ্য রায় প্রধান, আব্দুল জলিল আহমেদ, যুব সভাপতি বিষ্ণুব্রত বর্মণ সহ কোচবিহার জেলার বিভিন্ন বিধানসভা এলাকার নেতৃত্বরা।