থামছে না সীমান্তের বিবাদ, শ্যুটিং রেঞ্জে চলে এসেছে চিনা সেনা

29

ওয়েব ডেস্ক, ১৩ সেপ্টেম্বরঃ বিগত মাস কয়েক থেকে ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে আছে ভারত-চিন সীমান্ত। বিগত মাস কয়েক থেকেই এই বিবাদ যে মিটছে না কিছুতেই। একের পর এক সেনা ট্রুপ মোতায়েন। দ্বিচারিতার খেলা ভালোই খেলে চলেছে চিন। ব্রিগেড কমান্ডার স্তরের বৈঠক ফলপ্রসূ না হওয়ার পরে ফের একটা বৈঠকের আয়োজন করতে চাইছে ভারত। নয়াদিল্লির বক্তব্য আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজে বের করা উচিত। কিন্তু সেপথে হাঁটতে রাজি নয় বেজিং। কিন্তু দীর্ঘ আলোচনার পরও সেই বৈঠকে কোনও সমাধানসূত্র বের হয়নি বলে সূত্রের খবর। এদিকে সীমান্তে ক্রমশ যুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে।

এদিকে রিপোর্ট বলছে সাঁজোয়া, অতিরিক্ত সেনা সীমান্তে মজুত করছে চিন। পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকের দক্ষিণ প্রান্তে স্পানগর গ্যাপে মোতায়েন রয়েছে ভারতীয় সেনা। সেনার শ্যুটিং রেঞ্জের মধ্যে চিনা সেনা চলে এসেছে বলে জানা গিয়েছে। ফলে ভারতীয় সেনায় জারি করা হয়েছে চূড়ান্ত সতর্কতা। চিনা উসকানিতে কোনওভাবেই যেন ভারত পা না দেয়, সেই নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

অগাষ্ট মাসের ৩০ তারিখ থেকে গুরুং হিল ও মাগার হিলের মধ্যবর্তী স্পানগর গ্যাপে অবৈধভাবে সেনা মোতায়েন করেছে চিন। প্যাংগং লেকের দক্ষিণ প্রান্তে চুশুলের কাছে দখলদারি এই সেনা মোতায়েনের মূল উদ্দেশ্য। দুই দেশই শ্যুটিং রেঞ্জের মধ্যে দাঁড়িয়ে রয়েছে বলে খবর।

আসলে শনিবার ভারত ও চিনের ব্রিগেড কম্যান্ডার স্তরের যে বৈঠক ছিল তাতে দুই দেশের ফরোয়ার্ড পজিশন থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। অথচ, এই ফরোয়ার্ড পজিশন থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে গত ৭ সেপ্টেম্বর থেকেই দু’দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে। যাই হোক, সমস্যা না মিটলেও আলোচনার পথ এখনও খোলা রেখেছে দুই দেশ। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই ফের দুই দেশের সেনাকর্তারা বৈঠকে বসবেন।

কৌশলগত দিক থেকে এই এলাকা যে দেশ প্রভাব ধরে রাখতে পারবে, তারা সামরিক দিক থেকেএ এগিয়ে থাকবে। এই বিষয়টা মাথায় রেখেই চিন স্পানগার লেকের দক্ষিণ প্রান্তে ইতিমধ্যে একটি রাস্তা তৈরি করেছে চিন। যার মাধ্যমে চিনা সেনা যাতায়াত করতে সক্ষম।