বাজেটে একধাক্কায় অনেকটাই কমানো হল রেশনের বরাদ্দ

477

ওয়েব ডেস্ক, ৫ ফেব্রুয়ারিঃ এবারের কেন্দ্রীয় বাজেটে রেশনের বরাদ্দ একধাক্কায় অনেকটাই কমিয়ে দিল মোদী সরকার। গত বছর এই খাতে বরাদ্দ ছিল ১ লক্ষ ৮৪ হাজার ২২০ কোটি টাকা। তা এ বার দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৫৭০ কোটিতে। এতে চিন্তা বেড়েছে নবান্নর। রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে রাজ্যের ঘাড়ে বিশাল আর্থিক বোঝা চাপবে।রেশন ব্যবস্থার উপরও প্রভাব পড়বে। কেন্দ্রের কাছে আমাদের ৩,৫০০ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে।আইসিডিএসের চাল দেওয়ার কথা এফসিআইয়ের। গত দু’বছর ধরে তারা আমাদের কাছ থেকে চাল নিচ্ছে। এর জন্য এফসিআইয়ের কাছে ৮৫০ কোটি টাকা পাই আমরা।সেটাও দিচ্ছে না। বাজেট বরাদ্দ কমে যাওয়ায় সবটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।’

কেন্দ্র রেশনে বাজেট বরাদ্দ কমিয়ে দেওয়ার ফলে রাজ্যের বহু মানুষ অসুবিধায় পড়বে। এর পাশাপাশি রেশন ব্যবস্থা চালু রাখতে গেলে অধিক পরিমাণে অর্থ ব্যয় করতে হবে রাজ্যকে। রেশন ডিলারদের সর্বভারতীয় সংগঠন, অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস অ্যান্ড শপ ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু এই প্রসঙ্গে জানান, “রেশনের সঙ্গে কোটি কোটি মানুষের রুজি-রুটি জড়িত। বাজেট বরাদ্দ কমিয়ে সবাইকেই অনিশ্চয়তার মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। এর প্রতিবাদে আমরা সারা দেশজুড়ে আন্দোলনে নামব।”

উল্লেখ্য, জাতীয় খাদ্যসুরক্ষা যোজনায় কেন্দ্র ৩ টাকা প্রতি কিলো হিসাবে চালের দাম রেখেছে। তাতে আরও ১ টাকা ভর্তুকি দিয়ে ২ টাকা কিলো করে রেশনে চাল দেয় রাজ্য সরকার। রাজ্যের খাদ্য দপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, প্রায় সাড়ে আট কোটি মানুষ স্বল্প মূল্যে রেশনের চাল-গম পান। কিন্তু কেন্দ্র রেশন বরাদ্দ কমানোর ফলে কম টাকাতে রাজ্যের মানুষদের রেশন দেওয়া এবার চাপের হয়ে যাবে রাজ্য সরকারের পক্ষে।