উপোস করে নিজে হাতে পুজোর ভোগ রান্না করে রাজ্যপালকে খাওয়াবেন মুখ্যমন্ত্রী

264

কলকাতা, ২৭ অক্টোবরঃ মুখ্যমন্ত্রীর কালীঘাটের বাড়িতে পুজো। সেখানে প্রতিবছরের মতো আজও উপস্থিত হলেন সস্ত্রীক রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। তাছাড়া রাজ্যের সব মন্ত্রী, বিধায়করা। সন্ধ্যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের  ছাত্রাবস্থা থেকেই হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের বাড়িতে শক্তির আরাধনা করেন। রাজ্য-দল-প্রশাসনের সব কাজ সামলে পুজোর আয়োজনের বিষয়ে তদারকি করেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর নির্দেশে ইতিমধ্যেই রাজনীতি থেকে বুদ্ধিজীবী সর্বস্তরের বিশিষ্ট মানুষের সেখানে এসে পৌঁছে গিয়েছেন। সকাল থেকে উপোস করে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির কালীপুজো মানেই, দক্ষতার সঙ্গে সবটা সামলাবেন তিনি। বছরে এই একটা দিনই বোধহয়, মমতাকে কাছে পান তাঁর বাড়ির লোকজন। এই একটা দিনই, বাড়ির মেয়ে সারাটা দিন বাড়িতে। তাঁকে ছাড়া এত বড় আয়োজন ভাবতেই পারেন না বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের সদস্যরা। এই পুজো মণ্ডপে ছুটছেন, আবার পর মুহূর্তেই অতিথি অভ্যাগতদের অভ্যর্থনায় রত। নিজে হাতে পুজোর ভোগ রান্না করেন মমতা। এবারও তার অন্যথা হয়নি। ইতিমধ্যেই সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল মমতার ভোগ রান্না করার ভিডিয়ো।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে এদিন একটি লাইভ হয়। সেখানে দেখা যায়, রান্না করছেন মমতা। গ্যাসের দুই ওভেনের একটিতে বসানো খিচুরির ডাল, অন্যটিতে তরকারি। কখনও ডাল নাড়ছেন। আবার কখনও তরকারি। তাঁকে দেখে মনে হচ্ছে, বাড়ির সেই মেয়েটা-যাঁকে ছাড়া বাড়ির লোকজনের চোখে অন্ধকার। এই মেয়ে দক্ষ হাতে যেমন রাজ্য চালান, তেমনই সামলান হেঁশেলও।