আরএসএসকে নিষিদ্ধ করা উচিত দাবি অকাল তখতের

561

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ অক্টোবরঃ আরএসএসকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি জানাল শিখদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় সংস্থা অকাল তখত। ‘কারণ আরএসএসকে প্রকাশ্যে কাজ করতে দেওয়ার অর্থ জাতিকে বিভক্ত করা। সংগঠনের তরফে বিভিন্ন জায়গায় যে সব মন্তব্য করা হচ্ছে তা কখনওই দেশের পক্ষে মঙ্গলজনক নয়। সময়ের প্রয়োজনে এই সংগঠনের রাশ এবার টেনে ধরা উচিত।’ শিখদের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংগঠন অকাল তখত প্রধান জ্ঞানী হরপ্রীত সিং সোমবার অমৃতসরে এমনই  মন্তব্য করেছেন।

কেন্দ্রের বর্তমান শাসক দল বিজেপি মূলত আরএসএসের মতাদর্শ মেনে চলে।স্বাভাবিকভাবেই হরপ্রিত সিংয়ের এই মন্তব্যে ক্ষুব্ধ রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্ব। তবে এখনও পর্যন্ত দলের পক্ষ থেকে সরাসরি এ বিষয়ে কোনও পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। বিজেপি-সংঘ যোগ সূত্রের কথা বলা হলে হরপ্রীত বলেন, ‘দেশের স্বার্থে যখন আরএসএস কথা বলে না, কাজ করে না তখন তাদের দরকার কী! এরা দেশকে ধ্বংস করে দেবে। তাই সময় থাকতে সাবধান হওয়া উচিত।’

প্রসঙ্গত, দশেরার দিন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘যাঁরা ভারতে বসবাস করেন তারা সবাই হিন্দু। কারণ ভারত একটি হিন্দু রাষ্ট্র। শিরোমনি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটির সভাপতি গোবিন্দ সিং লাঙ্গোয়াল তৎক্ষণাৎ ভাগবতের ওই মন্তব্যের প্রতিবাদ ও নিন্দা করেন।