পরকীয়ার পরিণতি, স্বামী ও তার প্রেমিকাকে বেধড়ক মার স্ত্রীর

234

তুষার কান্তি বিশ্বাস, উত্তর দিনাজপুরঃ পরকীয়ায় লিপ্ত স্বামী। তার জেরে সংসারে প্রায় ১ বছর থেকে অশান্তি লেগেই রয়েছে। স্বামী সঙ্গীকে নিয়ে দুর্গাপূজার বাজার করার সময় চুলের মুঠি ধরে টেনে এনে বিদ্যুতের খুঁটিতে বেঁধে ব্যাপক মারধর করার অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ পুরসভার ৮ নাম্বার ওয়ার্ডের শক্তিনগর এলাকায়। ওই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ৷ ঘটনার প্রকৃত তদন্তের আশ্বাস দিয়ে নিগৃহীতাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ।

জানা গেছে, রবিবার রায়গঞ্জ শহরের মোহনবাটি এলাকার একটি জুতার শোরুমের সামনে থেকে স্বামীর পরকীয়ার সঙ্গীকে তুলে নিয়ে গিয়ে ল্যাম্প পোষ্টে বেধে পেটালেন এক মহিলা। অভিযোগ অঞ্জলি পোদ্দার নামের ওই মহিলার সাথে নারায়ন সরকার নামে এক ব্যক্তির অবৈধ ভাবে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নারায়ন অঞ্জলির সাথে সম্পর্ক তৈরী করার পর থেকেই নিজের সংসারের দায়িত্ব নজর আন্দাজ করতে থাকে৷

নারায়ন সরকারের আইনত স্ত্রী মনিকা সরকারের অভিযোগ, এক বছর ধরে অঞ্জলির সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন নারায়ন। এই সময়কাল ধরে সাংসারিক বিষয়ে অবহেলা শুরু করে নারায়ন। সুযোগের অপেক্ষায় চুপ করে অপেক্ষা করছিলেন মনিকা। রবিবার রাত ৮ নাগাদ নারায়ন ও অঞ্জলি দু’জনে মোহনবাটি এলাকায় দেখা করে৷

সেই সময়েই চুপিসাড়ে স্বামীর পিছু নেওয়া মনিকা অঞ্জলি নারায়নকে ধরে মারধোর শুরু করে৷ বেগতিক বুঝে গা ঢাকা দেয় নারায়ন। অঞ্জলিকে ধরে এনে শক্তিনগরে ল্যাম্পপোষ্টে বেধে পেটাতে শুরু করেন মনিকা। এলাকাবাসী খবর দেয় রায়গঞ্জ থানায়, পুলিশ এসে সুবিচারের আশ্বাস দিয়ে অঞ্জলিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়৷ আইন মোতাবেক শাস্তির প্রার্থনা করে মনিকা ও তার আত্মীয়রা৷ পাশাপাশি নিজেকে নির্দোষ বলে দাবী করেছেন নারায়নের সঙ্গীনী অঞ্জলি৷

সব মিলিয়ে পুজো মরশুমে শহরে পরকীয়া নিয়ে গোলমালে আলোচনার ঝড় উঠেছে৷ অনেকেই বলছে মহামান্য আদালত পরকীয়াকে বৈধ বললেও বৈধ স্ত্রী কি তার স্বামীর প্রতি অধিকার কখনও ছাড়বে ? যে প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।