পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আজ কাশ্মীর যাবে ইউরোপীয় প্রতিনিধি দল

158

ওয়েব ডেস্ক, ২৯ অক্টোবরঃ ৩৭০ ধারা বিলোপের পর বর্তমান পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে আজ কাশ্মীর যাচ্ছেন ইউরোপীয় পার্লামেন্টের এক প্রতিনিধিদল। গতকালই এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে দেখা করে ওই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।
প্রতিনিধি দলের সদস্যদের প্রধানমন্ত্রী মোদী দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বুঝিয়ে দিলেন সন্ত্রাসবাদ রুখতে সকলকে এক হতে হবে। পাশাপাশি উপত্যকা সফর ইউরোপীয় আইনসভার সদস্যদের জন্য ফলপ্রসূ হোক তার শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী। শুধু প্রধানমন্ত্রী নয়, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের সঙ্গেও দেখা করলেন বিদেশি প্রতিনিধিদলের সদস্যরা।

উপত্যকা থেকে বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের পর এই প্রথম কোনও বিদেশি প্রতিনিধিদল ভূ-স্বর্গে যাচ্ছেন। বিষয়টি জানাজানি হতেই পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতির তরফে টুইট করেন তাঁরা মেয়ে ইলতিজা।  মায়ের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তিনি লিখেছেন, ‘আশাকরি ওই প্রতিনিধিদলের সদস্যরা এখানকার মানুষের সঙ্গে কথা বলবেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম, চিকিৎসক ও সমাজের অন্যান্য শ্রেণির মানুষের সঙ্গে কথা বলে আসল রহস্যটা উদঘাটন হবে।’

এদিকে, কাশ্মীরে ইউরোপীয় প্রতিনিধিদলের যাওয়া নিয়ে কটাক্ষ করেছে কংগ্রেস।  কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ টুইটে লিখেছেন, ‘ভারতের বাসিন্দা হয়ে বিরোধীদের উপত্যকায় যেতে দেওয়া হচ্ছে না। অথচ বিদেশিদের যেতে দেওয়া হচ্ছে। এটা গণতন্ত্রের লজ্জা।’ প্রসঙ্গত, গত ১১ বছরে এই প্রথম কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতকে সমর্থন করেছেন ইউরোপীয় আইনসভার সদস্যরা। এর আগে রাষ্ট্রসঙ্ঘ থেকে শুরু করে বিদেশের মাটিতে যখনই সুযোগ হয়েছে পাক প্রধানমন্ত্রী কাশ্মীর ইস্যুকে হাতিয়ার করেছেন। যদিও কেউই পাকিস্তানের ডাকে সাড়া দেয়নি।ফলে ক্রমশই ফাঁপরে পড়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।