দেগঙ্গায় পণের দাবিতে গৃহবধূকে খুন করার অভিযোগ স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে

29

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ পণের দাবিতে বছর তেইশের গৃহবধূকে, পিটিয়ে খুন করে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল স্বামী এবং শ্বশুর বাড়ির লোকদের বিরুদ্ধে। ঘটনার পরেই অভিযুক্তরা ঘর ও গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে দেগঙ্গার আমুলিয়া গ্রামে। মৃতদেহ উদ্ধার করে দেগঙ্গা থানার পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে।বছর তেইশের  সেলিমা বিবি, পণের দাবিতে তাঁকে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে  অভিযোগ বধূর পরিবারের। মৃতদেহ উদ্ধার কে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য দেগঙ্গার আমুলিয়া পঞ্চায়েতের উত্তর আমুলিয়া গ্ৰামে।

মৃতার পরিবারের অভিযোগ পনের দাবিতে পিটিয়ে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের মেয়েকে। বছর তিনেক আগে বিয়ের সময় পাওনা মতো পন দেওয়ার পরও প্রায়দিনই চলতো আরও টাকার জন্য অত্যাচারে ।আজ মেরে ঝুলিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় শ্বশুর বাড়ির লোকজন। খবর পেয়ে দেগঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায় বিশ্বনাথ পুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। মৃত গৃহবধূর দু-বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।দেগঙ্গা থানায় মৃত গৃহবধূর স্বামী, স্বশুর, স্বাশুড়ি,জা ও ভাসুরের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। জানা গেছে মৃতদেহ বাড়িতে ফেলে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।