আরউইন পরিবার অস্ট্রেলিয়ায় ৯০ হাজার বন্য প্রাণীর জীবন বাঁচালেন

62

ওয়েব ডেস্ক, ৬ জানুয়ারি : অস্ট্রেলিয়ার বিস্তীর্ণ বনাঞ্চলে বিধ্বংসী দাবানল লেগেছে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাস থেকেই। দাবানলের ফলে পুড়েছে প্রায় কয়েক জমি। পুড়ে ছাই হয়েছে বহু বাড়িঘর। ইতিমধ্যেই মারা গিয়েছে প্রায় ৫০ কোটি বন্যপ্রাণী। প্রাণ হারিয়েছেন বহু মানুষ। শুধু প্রাণহানী নয়, গৃহহীন হয়েছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ। আগুনের লেলিহান শিখায় জ্বলে পুড়ে শেষ সব কিছুই। পুড়ে গিয়েছে প্রায় ৬ মিলিয়ন হেক্টর বন।

প্রয়াত “কুমির শিকারী” স্টিভ আরউইনের পরিবার অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে আক্রান্ত প্রায় ৯০ হাজারেরও বেশি বিপদগ্রস্থ বন্যপ্রাণীদের উদ্ধার করেছেন। স্টিভ মারা গেলেও তাঁর পরিবার প্রাণী সংরক্ষণের ধারা অব্যাহত রেখেছেন। আরউইনের মেয়ে বিন্দি ইরভিন এবং তাঁদের পরিবারের বাকি সদস্যরা এইসব প্রাণীদের উদ্ধার ও চিকিত্সা করেছেন।

এই ৯০ হাজার প্রাণীর মধ্যে অনেকেই অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক ধ্বংসাত্মক দাবানলে আহত হয়েছিল। বিন্দির ভাই রবার্ট আরউইন সোশ্যাল মিডিয়ায় বলেছেন যে অনাথ প্লাটিপাস, অলি অস্ট্রেলিয়া চিড়িয়াখানার বন্যপ্রাণীর হাসপাতালে ৯০ হাজার রোগী ছিলেন। আরউইন পরিবার চিড়িয়াখানাটির মালিক এবং তারাই এটি পরিচালনা করেন। নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের কোয়ালাদের প্রায় এক তৃতীয়াংশ এই অগ্নিকাণ্ডে মারা গিয়েছে।

ফেডারেল পরিবেশমন্ত্রী সুসান লে বলেছেন, দাবানলের আগুন বন্যপ্রাণীদের বাসস্থানের ৩০% ভষ্মীভূত করে দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়া চিড়িয়াখানার তথ্য অনুযায়ী, “অনিয়ন্ত্রিত বাসস্থানের ধ্বংস”। প্রায় ৪০,০০০ থেকে ১০,০০০ কোয়ালা বেঁচে রয়েছে হয়তো। প্রাণীগুলি এখনও বিপন্ন হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে।