যাত্রা শিল্পকে বাঁচাতে তিনদিন ব্যাপী লোকসংস্কৃতি ও যাত্রা উৎসবের সূচনা

29

তুষার কান্তি বিশ্বাস, উত্তর দিনাজপুরঃ যাত্রা শিল্পকে মানুষের মধ্যে তুলে ধরতে উদ্যোগী রাজ্য। আর সেই লক্ষ্যেই উত্তর দিনাজপুর জেলাতেও তিন দিন ব্যাপী শুরু হল লোকসংস্কৃতি ও যাত্রা উৎসব।

জেলার কালিয়াগঞ্জ ব্লকের ফতেপুর এলাকার চান্দোইল ফুটবল মাঠে শুরু হল এই লোকসংস্কৃতি ও যাত্রা উৎসব।  এই যাত্রা উৎসবের উদ্বোধন করেন কালিয়াগঞ্জের নবনির্বাচিত তৃনমূল কংগ্রেস বিধায়ক তপন দেব সিংহ।  এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রায়গঞ্জ মহকুমাশাসক অর্ঘ ঘোষ, উত্তর দিনাজপুর জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের আধিকারিক রানা দেবদাস, বিডিও প্রসূন কুমার ধারা সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ।

তিনদিন ব্যাপী এই লোকসংস্কৃতি ও যাত্রা উৎসবে স্থানীয়, আঞ্চলিক ও কলকাতার যাত্রাপালা, জেলার বিভিন্ন লোকশিল্পের নানান অনুষ্ঠান যেমন খনপালা, মুখানৃত্য, রঙপাঁচালি, বাউল, ভাটিয়ালি প্রদর্শিত হবে। মূলত জেলার লোক শিল্পের বিভিন্ন আঙ্গিকগুলোকে তুলে ধরার পাশাপাশি জেলার যাত্রাদলগুলোকে বাঁচানোর এই প্রয়াস বলে জানিয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলা তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের আধিকারিক রানা দেবদাস। প্রত্যন্ত এলাকার লোকশিল্পীদের এই ধরনের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মহতী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন জেলার লোকশিল্পীরা। তাঁরা এই লোকশিল্প ও যাত্রা উৎসবের ফলে ভীষণ উপকৃত হবেন বলে জানিয়েছেন। লোকশিল্প ও যাত্রা উৎসবকে ঘিরে চান্দোইল ফুটবল মাঠে বিশাল মেলাও বসে।

রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রীর লোকশিল্পী, নাট্যশিল্পী ও যাত্রাশিল্পীদের সাহায্য ও স্বীকৃতি দিতে নানান উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। শিল্পীদের আর্থিক ভাতা প্রদান থেকে শুরু করে পরিচয়পত্র প্রদান ও বিভিন্ন সময়ে নানান প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করেছেন।

এরফলে গ্রামেগঞ্জে দিনে দিনে বেড়ে চলেছে লোকশিল্পের প্রসার। এবার রাজ্যের লোকশিল্পের নানান আঙ্গিককে তুলে ধরতে ও যাত্রাশিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে উদ্যোগী হয়েছেন রাজ্যের মা মাটি মানুষের সরকার। জেলায় জেলায় শুরু হয়েছে লোকশিল্প ও যাত্রা উৎসব। হাজারে হাজারে লোকশিল্পী ও যাত্রা শিল্পীদের উৎসাহ আর উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় শুরু হল উত্তর দিনাজপুর জেলা লোকশিল্প ও যাত্রা উৎসব।  তিনদিন ব্যাপী এই লোকসংস্কৃতি ও যাত্রা উৎসবের উদ্বোধন করেন কালিয়াগঞ্জের নবনির্বাচিত তৃনমূল কংগ্রেস বিধায়ক তপন দেব সিংহ। 

জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোকশিল্পের বিভিন্ন আঙ্গিকের কয়েকশো শিল্পী তাদের শিল্পকলা প্রদর্শন করবেন এই লোকশিল্প ও যাত্রা উৎসব মঞ্চে। স্থানীয়, আঞ্চলিক ও কলকাতার বিভিন্ন যাত্রাদল যেমন তাদের যাত্রাপালা প্রদর্শন করবেন তার পাশাপাশি জেলার ঐতিহ্যবাহী খনপালা, মুখোশ নৃত্য,  রঙপাঁচালি, আদিবাসী নৃত্য,  বাউল ও ভাটিয়ালি গান পরিবেশন করবেন জেলার লোকশিল্পীরা।