বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তীর সূচনা

78

কার্তিক গুহ, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ পায়ে পায়ে ৫০ বছরে পড়লো বিদ্যালয়ের। সেই উপলক্ষ্যে নানান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালিত হলো দেবগ্রাম মহাদেব উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব।

পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনীর এক প্রত্যন্ত গ্রাম দেবগ্রাম। ১৯৭১ সালের এই দিনেই এলাকার কিছু বিদ্যোৎসাহী মানুষের প্রচেষ্টায় গড়ে উঠে এই বিদ্যালয়টি। তারপর নানান চড়াই উৎরাই পেরিয়ে ৫০ বছরে পড়লো বিদ্যালয়। সেই উপলক্ষ্যে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দুই দিন ব্যাপী আয়োজন করা হয়  সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব। বৃহস্পতিবার এই অনুষ্টানের সূচনা হয়। চলবে শুক্রবার পর্যন্ত।

ধামসা মাদোল, সরকারী ট্যাবলয়েড সহযোগে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সুচনা হয়। পরে মুল অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন বেলুড় মঠের স্বামী সত্যধর্মানন্দজী মহারাজ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক  শ্রীকান্ত মাহাত, শালবনী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মিনু কোয়াড়ী, বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধান শিক্ষক আদিত্য ভুষণ পাত্র সহ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান  শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্র ছাত্রী ও এলাকার মানুষেরা।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সৌমেন ব্যানার্জি জানান, “দুই দিন ব্যাপী চলা এই অনুষ্ঠানে আমরা বিভিন্ন ধরনের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। এদিন আয়োজন করা হয় রক্তদান শিবিরের। শিবিরে ৪১ জন রক্তদাতা স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন। যাদের মধ্যে বেশীর ভাগই জীবনের প্রথম রক্তদাতা।

তিনি আরো জানান, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক সুদর্শন ভট্টাচার্য মহাশয়ের আর্থিক সহায়তায় বিদ্যালয়ে স্বামী বিবেকানন্দ ও আরেক প্রাক্তন  শিক্ষকের আর্থিক সহায়তায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি করে পূর্ণাঙ্গ প্রতিকৃতির এদিন উদ্বোধন করা হয়েছে।  নাটক, কবিতা, আবৃত্তি,  ম্যাজিক শো ছাড়াও চক্ষু পরীক্ষা শিবির ও বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে বিদ্যালয়ে। তবে এই সামাজিক সচেতনতার অনুষ্ঠান মাত্র দুই দিনেই থেমে থাকবে না। সারা বছর ধরেই লাগাতার ভাবে আমাদের এই সামাজিক সচেতনতার অনুষ্ঠান চলবে।