গৃহবন্দিই থাকবেন নেতারা, নারদ মামলার নিস্পত্তি হল না আজও, ফের শুনানি আগামী বুধবার

45

ওয়েব ডেস্ক, ২৪ মেঃ আজকের মতো শেষে কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে নারদ মামলার শুনানি। জেল না জামিল মিলল না উত্তর। সোমবার মামলা শেষেও ঝুলেই রইল চার হেভিওয়েটের ভাগ্য। বুধবার হাইকোর্টের এই বেঞ্চেই মামলার পরবর্তী শুনানি। আপাতত গৃহবন্দি ফিরহাদ হাকিম ও শোভন চক্রবর্তী এবং শারীরিক অবস্থা উন্নতি না হওয়ায় হাসপাতালে মদন মিত্র ও সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

হাইকোর্টে মুখ পুড়ল সিবিআইয়ের। বুধবার পর্যন্ত নারদ মামলার শুনানি মুলতুবির আর্জি খারিজ করল হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ। আর্জি খারিজের পরেই হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে শুরু হল নারদ মামলার শুনানি। চার হেভিওয়েটের জামিনের শুনানি নিয়ে সওয়াল জবাব শুরু আদালত কক্ষে। বিচারপতিরা জানান, ‘সাইক্লোন আছড়ে পড়লে আরও বিলম্বিত হবে প্রক্রিয়া। আমরা কেন শুনানি পিছিয়ে দেব।’

শুনানিতে গত সোমবার নারদ অভিযুক্তদের গ্রেফতারি থকে ঘটনাক্রম তুলে ধরা হয়। সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, ‘গত সোমবার সিবিআই অফিসের বাইরে বিশাল মানুষের জমায়েত হয়। যে কারণে অভিযুক্তদের আদালতে হাজির করা যায়নি। দু’জন রাজ্যের মন্ত্রী আদালতে হাজির ছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী নিজে সিবিআই অফিসে এসে বসেছিলেন। বাধ্য হয়ে সিবিআই ভার্চুয়াল ভাবে অভিযুক্তদের হাজির করার আবেদন করা হয়। সশরীরে কেস ডাইরি নিয়ে যেতে পারেননি। সিবিআই অফিসের বাইরের ভয়ানক পরিস্থিতি ছিল।এর পর আমরা ৪০৭ নম্বর ধারা অনুযায়ী স্থানান্তর করার আবেদন করা হয় হাইকোর্টে। যেটা মেল করে অর্থাৎ অনলাইনে এবং মৌখিক ভাবে আবেদন করা হয়েছিল।’

এই সওয়ালের পাল্টা প্রশ্ন তোলেন চার নেতা-মন্ত্রীর আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি। তিনি বলেন, ‘১৭ তারিখ নিম্ন আদালতে জামিন পাওয়ার পর হাইকোর্টের নির্দেশে জামিন পেলেন না। তাদের জামিন মুক্ত রাখা হবে কিনা, সেটাই এখন মেগা ইস্যু।’একইসঙ্গে তাঁর অভিযোগ, জামিনের ওপর স্থগিতাদেশের মামলায় অভিযুক্ত পক্ষের কথা শোনা হয়নি।’এই প্রশ্ন শুনে বিচারপতি সৌমেন সেন অভিষেক মনু সিঙ্ঘভিকে প্রশ্ন করেন, ‘আপনি বলতে চাইছেন, সেদিন ডিভিশন বেঞ্চ নিম্ন আদালতের নির্দেশ না দেখেই অর্ডার দিয়েছে?’ উত্তরে হেভিওয়েটদের আইনজীবী বলেন,’না, দেখা হয়নি।’

অন্যদিকে, নারদ মামলায় নাটকীয় মোড়। মাঝরাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হল সিবিআই। হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানাল সিবিআই। বৃহত্তর বেঞ্চে শুনানি স্থগিত রাখার আবেদন জানিয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। অনলাইনে মামলা করেছে সিবিআই। আজই সুপ্রিম কোর্টে শুনানির আবেদন জানাবে সিবিআই। চার নেতা-মন্ত্রীর গৃহবন্দি করে রাখার নির্দেশের বিরোধিতা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

শুক্রবার জেল হেফাজত থেকে রেহাই পেয়েছেন ফিরহাদ হাকিম, শোভন চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র। চার হেভিওয়েটকে গৃহবন্দি থাকার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। আপাতত সেই নির্দেশই বহাল রইল।