গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ ঘিরে রহস্য, খুন না আত্মহত্যা ?

309

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ গৃহবধূর ঝুলন্ত মৃতদেহ ঘিরে রহস্য, খুন না আত্মহত্যা? এ নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। বসিরহাট মহকুমার টাকি পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাদরী এলাকার বছর চব্বিশের অন্বেশা ঘোষ, শুক্রবার গভীর রাতে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে গলায় দড়ি দেয় বলে অভিযোগ শ্বশুর শঙ্কর ঘোষের । ইতিমধ্যে মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ।ঘটনাস্থলে হাসনাবাদ থানার পুলিশ ও স্থানীয় বিডিও অরিন্দম মুখার্জী গিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন । ঐ গৃহবধূর বাপের বাড়ি টাকি পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ত্রিমোহিনী এলাকায়। গত ১১ মাস আগে টাকি পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের পেশায় গৃহ শিক্ষক সুদীপ্ত ঘোষের সঙ্গে বিয়ে হয় ঐ মহিলার।

অন্বেষা এবছরের বিএড এর ছাত্রী। শিক্ষিকা এই গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে রীতিমতো ধন্দ পরেছে পুলিশ। কেন গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করল সে? ঘটনাটি নিছক আত্মহত্যা না খুন? প্রশ্নচিহ্ন দেখা দিয়েছে প্রশাসনিক মহলে। প্রশাসনিক মহল থেকে ইতিমধ্যে তার স্বামী সুদিপ্ত ঘোষ ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের কে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ।