‘কল্কি ভগবান’-র আশ্রম থেকে উদ্ধার কোটি টাকার সম্পত্তি

432

ওয়েব ডেস্ক, ২০ অক্টোবরঃ নিজেকে বিষ্ণুর দশম অবতার ‘কল্কি’ হিসেবেই পরিচয় দিতেন। সেই কল্কি ভগবানের ডেরায় হানা দিয়ে কয়েকশো কোটি টাকার বেআইনি সম্পত্তির হদিশ পেয়েছে আয়কর বিভাগ।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, অবতারের বিভিন্ন রাজ্যের ডেরায় হানা দেয় আয়কর বিভাগ। চেন্নাই, হায়দরাবাদ, ব্যাঙ্গালুরু ও অন্ধপ্রদেশের একাধিক জায়গায় এই সেন্টার খোলা হয়েছিল। সব মিলিয়ে ৪০টি জায়গায় হানা দিয়েছিলেন আয়কর আধিকারিকরা। আয়কর দফতর সূত্রে খবর, ৪০৯ কোটি টাকার রসিদ উদ্ধার হয়েছে। যদিও এই টাকার কোনও হদিশ মেলেনি। শুধু তাই নয়, ১৮ কোটি মার্কিন ডলার এবং ৯৩ কোটি টাকার সোনা, হিরা।

আয়কর দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আধ্যাত্মিক শিক্ষা দেওয়ার নামে এই টাকা নেওয়া হত। শুধু দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে নয়, বিদেশ থেকেও প্রচুর টাকা আসত। এই কাজে নিযুক্ত ছিলেন অনেক লোক। তাঁরা টাকা নিয়ে রসিদ কেটে সব রসিদ একটা কেন্দ্রে এসে জড়ো করতেন।শুধুমাত্র আধাত্মিক ক্লাস নয়, কল্কি ভগবানের এই সংস্থা রিয়েল এস্টেট ও আরও অন্যান্য কাজেও যুক্ত ছিল বলে জানা গিয়েছে।

৭০ বছর বয়সী বিজয় কুমার ৯০-এর দশকে নিজেকে ভগবান বিষ্ণুর দশম অবতার কল্কি বলে দাবি করেন এবং সেই থেকেই কল্কি ভগবান নামে পরিচিত তিনি। তাঁর প্রতিষ্ঠান জিবাশ্রম শুরু হয় ৮০-র দশকের মাঝামাঝি। এর আগে তিনি লাইফ ইনশিওরেন্স কর্পোরেশনের এক কেরানি ছিলেন।