সরকারি সাহায্য প্রাপ্ত ক্লাব সদস্যদের টিকা করন শুরু করল দক্ষিন দিনাজপুর জেলা স্বাস্থ্য দফতর

30

বালুরঘাট, ২৫ মেঃ ১৮ বছরের উর্ধে করোনার টিকা করন শুরু না হলেও এবার সরকারি সাহায্য প্রাপ্ত ক্লাব সদস্যদের টিকা করন শুরু করল জেলা স্বাস্থ্য দফতর। আজ দক্ষিন দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের খাসপুর গ্রামীন হাসপাতালে এই অঞ্চলের ৫ টি ক্লাবের ২৫ জন করে সদস্যদের এই টিকা করনের কাজ শুরু হয়।

সম্প্রতি করোনার দ্বীতিয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর করোনার এই শৃখংল ভাঙতে  প্রথমে আশিংক পরে পুর্ন লকডাউন জারি করে রাজ্যে তৃতীয় বারের জন্য  ক্ষমতায় এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। এই লকডাউনের সময় পাড়ায় পাড়ায় লকডাউন মেনে চলার ক্ষেত্রে নজরদারি ও এলাকার জনগনের মধ্যে মাক্স ব্যবহার থেকে করোনার সতর্কবিধি মেনে চলার ব্যাপারে  জেলা প্রশাসনকে সরকারি সাহায্য প্রাপ্ত ক্লাব গুলির সহয়তা নেওয়ার কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এরপরেই জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলার সরকারি সাহায্য প্রাপ্ত  ক্লাব গুলির সাথে বৈঠক করতে দেখা যায় প্রসানিক আধিকারিকদের।  আর এরপরেই প্রত্যেক পাড়ায় পাড়ায় ওই সব ক্লাব উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে জনগনকে সচেতন করতে মাইক লাগিয়ে কোভীড সতর্কবিধি মেনে চলার বার্তা প্রচার শুরু করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি পাড়ায় কোভীড পরিস্থিতি খেয়াল রাখার ব্যাপারেও তাদের কাজ করার কথা বলা হয়েছিল। এই কাজের দরুন তারা যেহেতু এই মুহুর্তে করোনার ব্যাপারে কাজ করছেন। সেহেতু তারাও এখন প্রায় করোনা যোদ্ধার সামিল। তাই তাদের শারিরিক সুস্থ্যতা ও সুরক্ষা বজায় রাখার জন্য করোনার টিকা দেওয়া আবশ্যিক হয়ে পড়ে। তাদের কাজের ভিত্তিতে তাদের এই টিকা করনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে বলে সুত্র মারফৎ জানা গেছে।

আজ খাসপুর গ্রামীন হাসপাতালে  টিকা নিতে আসা অনান্য ৪ টি ক্লাবের সদস্যদের পাশাপাশি পাচটি ক্লাবের মধ্যে বালুরঘাট চকভৃগু অঞ্চল থেকে আসা  বিবেকানন্দ ক্লাবের সহ সম্পাদক চন্দন দাস জানান, তারা গতকাল ব্লক অফিস থেকে এই বিষয়ে ফোন পেয়ে টিকাকরনের বিষয়টি জানতে পারেন। বিডিও অফিস থেকে তাদের বলা হয় ক্লাবগত ভাবে আপনারা এবিষয়ে  ২৫ জন সদস্যের নাম ঠিকানা মোবাইল নম্বর দিয়ে রেজিউলেশন লিখিত ভাবে গ্রহন করে তা আজ সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ এই গ্রামীন হাসপাতালে জমা দিয়ে ভ্যাকসিন নেবার জন্য রেজিস্ট্রেশন করাতে হবে। সাথে আধার কার্ড ও মোবাইল ফোন নিয়ে যেতে হবে। তারপর তাদের করোনার  টিকা দেওয়া শুরু হবে।  সেইমত তারা ৫ টি ক্লাবের ২৫ জন করে সদস্যরা আজ টিকা নেবার জন্য এই খাসপুর গ্রামীন হাসপাতালে এসেছি বলে তিনি জানান।