রাজ্যে নতুন করোনা আক্রান্তর চেয়ে সুস্থ বেশি, আগের দিনের তুলনায় সক্রিয় রোগী কমল প্রায় ২ হাজার

122

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ মেঃ রাজ্যে করোনা মোকাবিলা করার জন্য যে আংশিক লকডাউন জারি করা হয়েছে, বন্ধ রয়েছে লোকাল ট্রেন, বাস এবং সেই সাথে যে কড়া বিধি নিষেধ চালু করা হয়েছে তার সুফল পেতে শুরু করে দিয়েছে রাজ্য।

আগের দিন যত মানুষ এই রাজ্য করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন গত ২৪ ঘণ্টায় তার চেয়ে অনেক কম মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। শুধুমাত্র তাই নয়, যত জন আক্রান্ত হয়েছেন নতুন করে তার চেয়ে অনেক বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এর সাথেই কমেছে রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা। আগের দিন যত সক্রিয় রোগী ছিলেন তার তুলনায় প্রায় ২ হাজার জন কমেছে গত ২৪ ঘণ্টায়।

আর তার সাথে আগের দিনের তুলনায় কমেছে দৈনিক মৃত্যুও। আগের দিন রাজ্যে মারা গিয়েছিলেন ১৫৬ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৫৩ জনের। এই নিয়ে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৪ হাজার ৫১৭ জন মারা গেলেন বলে জানিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য ও  পরিবার কল্যাণ দফতর।আগের দিন রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৮ হাজার ৪২২ জন আর সুস্থ হয়েছিলেন ১৯ হাজার ৪২৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৮৮৩ জন।  অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় ৫৩৯ জন কম। আর গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা মুক্ত হয়েছেন  ১৯ হাজার ৬৭০ জন।  অর্থাৎ যত জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন তার চেয়ে ১ হাজার ৭৮৭ বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন।

এর সাথেই রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা আগের দিনের তুলনায় কমেছে।  সোমবার, রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, এখন রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১ লক্ষ ২৮ হাজার ৫৮৫ জন। যা আগের দিনের তুলনায় ১৯৪০ জন কম।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৬৬ হাজার ২৮৮ জনের নমুনা  পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ২৪ পরগনা জেলাতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৭৯৩ জন। কলকাতায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৩ হাজার ১২১ জন।

এদিনও হাওড়া, হুগলি, নদিয়া এবং  দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাতে আক্রান্ত ১ হাজারের বেশি।

নদিয়া জেলাতে ১০৯৮ জন, হাওড়ায় ১১৯৬ জন, হুগলিতে ১১৬৯ জন এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাতে ১২০৫ জন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন গত ২৪ ঘণ্টায়।

জেলাগুলিতে কমেছে নতুন করে করোনা  সংক্রমণ।

দার্জিলিং জেলাতে ৫৫৩ জন, জলপাইগুড়িতে ৫৯২ জন, মুর্শিদাবাদ জেলাতে ২৭৫ জন, বাঁকুড়ায় ৫৮৮ জন, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাতে ৫৬৪ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ৬৯২ জন, পূর্ব বর্ধমানে ৫২৭ জন, পশ্চিম বর্ধমান জেলাতে ৭২৯ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

তবে মৃত্যু নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা নিয়ে। এই জেলাতে বেড়েছে মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ২৪ পরগনা জেলাতে ৪৭ জন মারা গিয়েছেন। তবে আগের দিনের তুলনায় মৃত্যু কমেছে কলকাতায় ।  আগের দিন কলকাতায় মারা গিয়েছিলেন ৪৬ জন, আর সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের।

১০ জন মারা গিয়েছেন জলপাইগুড়ি জেলাতে। মুর্শিদাবাদ এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা এই দুই জেলাতেই  ৮ জন করে মারা গিয়েছেন। ৭ জন করে মারা গিয়েছেন নদিয়া এবং হুগলি জেলায়। হাওড়া জেলাতে ৫ জন এবং উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৬ জন মারা গিয়েছেন। বীরভূম এবং পশ্চিম বর্ধমান এই দুই জেলাতেই  ৪ জন করে মারা গিয়েছেন। এক জন করে মারা গিয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুর এবং বাঁকুড়া জেলাতে।  পশ্চিম মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাতে ৩ জন করে মারা গিয়েছেন। পুরুলিয়া এবং দার্জিলিং জেলাতে ২ জন করে মারা গিয়েছেন গত ২৪ ঘণ্টায় বলে জানিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর।