আদিবাসী ও কুড়মি প্রধান গ্রামের মানুষ মেতেছে গরু খুঁটা উৎসবে

191

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বাঁকুড়া জেলার জেলার বিভিন্ন প্রান্তে আদিবাসী ও কুড়মি প্রধান গ্রামের এই গরু খুঁটা উৎসবের এক ঝলক দেখলে মনে হচ্ছে  স্পেনের বুলফাইটের দৃশ্য। এই খেলার নিয়ম কিছু আলাদা থাকলেও মূল বিষয় গরুর সঙ্গে মানুষের লড়াই। এই গরু খুঁটা উৎসব কবে শুরু হয়েছিল তা কেউই জানে না।

কালী পুজার পর থেকে বাঁকুড়ার আদিবাসী ও কুড়মি প্রধান কুড়মি প্রধান গ্রাম গুলিতে এই উৎসব হয়। এক এক দিনে এক একটি গ্রামে বসে গরু খুঁটার আসর। গরু খুঁটার জন্য সাতদিন আগে গ্রামের সব থেকে শক্তিশালী গোরুটিকে বেছে নেওয়া হয়। সাত দিন আগে থেকে সেই গোরুটিকে বিভিন্ন ধরনের ভালো ভালো খাবার ও মহুয়ার মদ খাইয়ে উত্তেজিত করা হয়।

এর পর নির্দিষ্ট দিনে গোরুটিকে নিয়ে গিয়ে গ্রামের ধারে একটি মাঠের মধ্যে খুঁটিতে বড় দড়ি দিয়ে বেঁধে দেওয়া হয়। সেখানে গোরুটির বাজানো হয় ধামসা,মাদলের তাল। এরপর গ্রামের কযেকজন যুবক হাতে পশুর চামড়া নিয়ে গোরুর সঙ্গে লড়াইয়ে নামে। বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে এই  লড়াই।

নিজেদের গ্রামের মানুষের সাথে সাথে আশপাশের গ্রাম থেকে আসে নানা সম্পদায়ের হাজার হাজার মানুষ। এবং এই লড়াই উপভোগ করে। লড়াই এ যে জয়ী হয় সে বীরের মর্যাদা পায়। সন্ধ্যা নামলে লড়াই বন্ধ হয়।