জাদুর জাল থেকে বেরিয়ে এবার প্রতারণার শিকার পি সি সরকারের কন্যা

793

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ জানুয়ারিঃ যে কিনা নিজের জাদুতে সবাইকে বোকা বানিয়ে জাদু দেখান তিনি কিনা এবার বোক হলেন।এবার অনলাইন প্রতারণার শিকার বিশ্ববিখ্যাত জাদুকর পি সি সরকারের মেয়ে অভিনেত্রী মৌবনী সরকার৷ প্রায় ১৭ হাজার টাকা খোয়া গিয়েছে তাঁর৷ গড়িয়াহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৌবনী৷ তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, ১১ ই জানুয়ারি অচেনা ফোন নম্বর থেকে মৌবনীর কাছে ফোন আসে যে তিনি লটারি জিতেছেন। একটি কালার টিভি পেয়েছেন তিনি। যার বাজারমূল্য ৪৯০০০ টাকা। হঠাৎ করেই লটারি জেতার খবরে বেশ খুশি হয়ে যান মৌবনী৷

মৌবনী জানিয়েছেন, তাঁকে ফোনে বলা হয়েছিল, যদি উপহার নিতে হয় তাহলে তাদের ওয়েবসাইট থেকে পাঁচ হাজার টাকা মূল্যের কিছু কেনাকাটা করতে হবে। যারা ফোন করছিল তারা তাদের পরিচয় দিয়েছিল পেটিএম মল থেকে বলছে বলে।বিশ্বাস যোগ্যতা অর্জনের জন্য মৌবনীর মোবাইলের হোয়াটসঅ্যাপে, তাদের পরিচয় পত্র পাঠিয়ে দেয়। প্যান কার্ড ,আধার কার্ড, আইডেন্টিটি কার্ড থেকে আরম্ভ করে সমস্ত পরিচয় পত্র। যিনি ওই সংস্থা থেকে ফোন করছিলেন তার নাম নীতিন কুমার সিং বলে জানিয়েছিলেন। পরিচয় পত্রেও একই নাম ছিল। এসব তথ্য পেয়ে বিশ্বাস দৃঢ় হয় মৌবনীর৷ তিনি পাঁচ হাজার টাকার কেনাকাটা করেও ফেলেন।

এবার অভিনেত্রীকে বলা হয় জিএসটির জন্য ১১৯০০ টাকা দিতে হবে। তবে এই টাকাটা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে।পরিচয় পত্র যেহেতু আছে সেই জন্যে আর না ভেবেই মৌবনী সেই টাকা ব্যাঙ্ক ট্রান্সফার করে দেন তাদের একাউন্টে। তারপর থেকে তারা এখনও পর্যন্ত মৌবনীকে ফোন করেনি কিংবা ফোন ধরেননি। তারপরই গড়িয়াহাট থানায় অভিযোগ জানায় অভিনেত্রী।ইতিমধ্যেই পুলিশি তদন্ত শুরু হয়ে গেছে। তবে প্রতারণার ঘটনা হামেশাই প্রকাশ্যে আসছে।কেন অভিনেত্রী এর ফাঁদে পা দিলেন এটাই বোঝা যাচ্ছে না।  তবে অভিনেত্রী জানিয়েছেন ছোটবেলা থেকেই লটারিতে তিনি উপহার পেয়েছেন আর এবারও তাই ভেবেছিলেন তিনি।