এবারের দর্শনার্থীদের জন্য আকর্ষণ রয়েছে ১৭ কোটির ‘সোনার দুর্গা’

537

ওয়েব ডেস্ক, ৪ অক্টোবরঃ ২০১৫ সালে দুর্গা পুজোয় সব থেকে বড় আকর্ষণ ছিল দক্ষিণ কলকাতার দেশপ্রিয় পার্কের ‘বিশ্বের সবথেকে বড় দুর্গা। সেই পুজো প্রচারে চমকের জন্য প্রথমে হোর্ডিং-এ লেখা হয়েছিল, ‘এত বড় সত্যি। আর এবার দর্শনার্থীদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের সোনার দুর্গা। প্রতিমা গড়তে সোনা লেগেছে ৫০ কিলোগ্রাম। প্রতিমার অস্ত্র তৈরি হয়েছে রূপো দিয়ে। প্রায় ১৭ কোটি টাকা বাজেটের সোনার দুর্গা দেখতে মণ্ডপে উপছে পড়ছে ভিড়। সোনার দুর্গা দর্শনের জন্য চতুর্থী থেকেই ব্যাপক উৎসাহ দেখা দিয়েছে মানুষের মধ্যে।

সে বিষয়ে পুজো উদ্যোক্তারা জানান, “সোনা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এবারের দূর্গা প্রতিমা। সোনার পাত দিয়ে প্রতিমা গড়তে লেগেছে কমপক্ষে ৫০ থেকে ৬০ কিলো সোনা। সে কারণেই খরচ পড়েছে ১৭ কোটি টাকা।”শুধু প্রতিমার ক্ষেত্রে নয়, থিমের ক্ষেত্রেও আনা হয়েছে অভিনবত্ব বলে দাবি পুজো উদ্যোক্তাদের। আর সোনার দুর্গার নিরাপত্তায় কলকাতা পৌরসভার তরফ থেকে নিরাপত্তার বিষয়টিতে জোড় দিয়ে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলেও জানানো গিয়েছে।

পুজো কমিটির সাধারণ সম্পাদক সজল ঘোষ জানান, সোনার দুর্গা গড়তে ২৫০ কর্মী তিন মাস অক্লান্ত পরিশ্রম করেন এবং প্যান্ডেলটি শেষ করতে আড়াই মাস সময় লাগে। কেবল মা দুর্গার অস্ত্রগুলি রুপো দ্বারা তৈরি হয়েছে। তবে পুরো প্রতিমাটি ৫০ কেজি সোনা দিয়ে তৈরি হয়েছে।