বনমহোৎসবের দিন কোচবিহার শালবাগান থেকে শুভ সুচনা হল ট্রি অ্যাম্বুলেন্সের

72

কোচবিহার, ১৪ জুলাইঃ আজ ১৪ ই জুলাই ২০২১ বনদপ্তর কোচবিহার, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পরিচালনায়, মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অনুপ্রেরনায় সারা বাংলার পাশাপাশি কোচবিহারের শালবাগান প্রাঙ্গনেও সারম্বরে অনুষ্ঠিত হল বনমহোৎসব-২০২১। এদিনের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। কোচবিহারের জেলা শাসক পবন কাদিয়ান, ডিএফও সঞ্জিব কুমার সাহা, রেঞ্জার সুরঞ্জন সরকার সহ আরও অন্যান্য বনাধিকারিকরা। এর পাশাপাশি এদিনের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল স্পোর, ক্রাপ্স, মাউন্ট্রেকাস অ্যাসসিয়েশন প্রভৃতি বন্যপ্রান ও পরিবেশপ্রেমী শাখা-সংগঠনের সদস্য-সদস্যরা।

জানা গেছে, এদিনের এই অনুষ্ঠানে তারা কোচবিহার শালবাগান চত্তরে বৃক্ষ রোপণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সুচনা করে। এরপর ওখান থেকে একটি ট্রি অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া হয় এই ট্রি অ্যাম্বুলেন্সটিকে কেন্দ্র করে আগামী সাতদিন ধরে সারা জেলা ঘুরে ঘুরে বৃক্ষ রোপণ কর্মসুচি চলতে থাকবে। পরবর্তিতে সেখানে বন্যপ্রান ও সরিসৃপ নিয়ে কাজ করা একটি সংগঠন স্পোরের ব্যাবস্থাপনায় একটি খেলার মাধ্যমে হাতি-মানুষ সহাবস্থান নিয়ে একটি সচেতনতা শিবির করা হয়। এরপর বনদপ্তরের তরফে মধ্যান্যভোজন ও জলযোগে অনুষ্ঠানের শুভ সমাপ্তি করা হয়।

এদিনের এই অনুষ্ঠান থেকে জেলা শাসক পবন কাদিয়ান বলেন, আমরা আমাদের জেলা কোচবিহারে আজ থেকে আগামী ২০ তারিখ প্রজন্ত বনদপ্তরের মাধ্যমে বনমহোৎসব পালন করছি, আজ শহর সংলগ্ন শালবাগান প্রাঙ্গন থেকে বৃক্ষ রোপণ করে তার শুভ সুচনা হল। তিনি আরও বলেন, প্রকৃতি ও আমরা আলাদা নই। প্রকৃতি থেকে আমরা আছি, আর আমারা প্রকৃতির জন্যই থাকবো। আমাদের সবসময় প্রকৃতিকে রক্ষ্যা করে চলতে হবে।

ডিএফও সঞ্জিব কুমার সাহা জানান, আমাদের এবারের স্লোগান আছে, ‘প্রাকৃতিক দুর্জগে প্রকৃতিই রক্ষক’ এই স্লোগানকে কেন্দ্র করেই অক্সিজেনের ঘাটতি কভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই এবারে আমাদের এই ট্রি অ্যাম্বুলেন্সের সুচনা। একসপ্তাহ ধরে এই ট্রি অ্যাম্বুলেন্স সারা জেলা ঘুরে বেরাবে এবং প্রাকৃতিক অক্সিজেনের মহিরুহ গাছ সাধারন মানুষদের মধ্যে বিলিয়ে দেওয়া হবে। এবং তা প্রতিরক্ষার বার্তাও থাকবে।

বনমহোৎসব-২০২১ কে কেন্দ্র করে কোচবিহার বনদপ্তরের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে বন্যপ্রান ও পরিবেশপ্রেমি শাখা সংগঠনের সদস্য সদস্যরা, প্রশাসনিক আধিকারিকরা ও আপামর কোচবিহারবাসী।