সাত রাজ্যের সাংগঠনিক কমিটি ভেঙ্গে দিল তৃনমূল

761

ওয়েব ডেস্ক, ১৪ অক্টোবরঃ পশ্চিমবঙ্গের পর উত্তর-পূর্বের সাত রাজ্যের সব সাংগঠনিক কমিটি ভেঙে দিল তৃণমূল কংগ্রেস। সোমবার রীতিমত লিখিত বিবৃতি দিয়ে এই সিদ্ধান্তের কথা তারা জানিয়েছে। সেই লিখিত বিবৃতিতে রয়েছে, ২০২০ সালের প্রথম দিকে আবার নতুন করে কমিটি তৈরি করা হবে। কিন্তু হঠাৎ কেন এই সিদ্ধান্ত নিল শাসকদল, তা নিয়ে প্ৰশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহল।

জানা গেছে,পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে সংগঠন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। এক সময় অসম, অরুণাচল প্রদেশ, ত্রিপুরা ও মণিপুরের বেশ কয়েকজন বিধায়ককে পাশেও পেয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃনমূল কংগ্রেস। কিন্তু ইদানিং গেরুয়া শিবিরের দাপটে প্রায় শেষ হতে চলেছে ওই সব রাজ্যে। তাই দলকে নতুন করে সাজাতে চাইছে তৃনমূল।  

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, অসম, অরুণাচল প্রদেশ, ত্রিপুরা ও মণিপুর সহ বিভিন্ন রাজ্যগুলিতে নতুন করে সংগঠনকে সাজানোর পরিকল্পনা রয়েছে দলনেত্রীর। সে কারণেই আপাতত সাংগঠনিক কমিটি গুলিকে ভাঙা হল বলে জানা গিয়েছে। তাছাড়া এতদিন এই সব রাজ্য গুলিতে সংগঠন পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব সামলেছেন এক সময় তৃনমূল নেতা মুকুল রায়, সব্যসাচী দত্ত। তাঁরা এখন বিজেপির নেতা। সে দিকটাও নজরে রেখে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে খোলনলচে বদলানোর পরিকল্পনা করছে তৃণমূল।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের তৃনমূল কংগ্রেস বিভিন্ন রাজ্যে প্রার্থী দিয়েছিল। তাতে কিন্তু গেরুয়া ঝড়ে প্রায় উত্তর-পূর্বের বিভিন্ন রাজ্যে গুলিতে তৃনমূল কংগ্রেসের ভরাডুবি হয়। তারপর দলের পক্ষ থেকে সাত রাজ্যের সাংগঠনিক কমিটি ভেঙে দিল তৃণমূল। যাতে ২০২০ সালে সংগঠনকে আরও বেশি শক্তিশালি করা যায় সেই লক্ষে এই সিদ্ধান্ত তৃনমূলের।