পেঁয়াজ চুরি করে এনে সাধারন মানুষের কথা ভেবে ১০ থেকে ২০টাকা কেজি দরে বিক্রি করায় অভিযোগে গ্রেফতার ২ যুবক

351

ওয়েব ডেস্ক, ২৭ ডিসেম্বরঃ বাঙালির রান্নার একটি অন্যতম প্রধান উপকরণ পেঁয়াজ। আর এই পেঁয়াজের দাম আকাশ ছোঁয়া। তাই এখন রান্নায় পেঁয়াজের পরিমাণটা তেমন দেখা যায় না। পেঁয়াজের দাম কোথাও কোথাও সেঞ্চুরির মাত্রা পেরিয়ে ১৫০ টাকা কেজিতে পৌছে গেছে। এই সময়ে যদি কেউ পেঁয়াজ ১০ থেকে ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে গিয়ে গ্রেপ্তার ২ যুবক। এমনি চঞ্চল্যকার ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের গোয়ালিয়রের এলাকাই সব্জি মান্ডি বাজারে। 

জানা গেছে, সাধারণ মানুষের কথা ভেবে ১০ টাকা-২০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন অজয় জাটব এবং জিতু বাল্মীকি নামে দুই যুবক।  তাদের কাছে গেলেই ১০ থেকে ২০ টাকা কেজি দরেই পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছিল। যার ফলে স্বাভাবিকভাবেই লাইন পড়ছিল মানুষের। কিন্তু বাধ সাধল খোদ রাজ্য পুলিশ। যেখানে পেঁয়াজ ১০০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি সেখানে এই দুই যুবক কি করে ১০ টাকা-২০ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছে। এই খবর পাওয়ার পর পুলিশের সন্দেহ হয় দুই যুবকের উপর। তবে কিছুতেই তারা ওই দুজনের নাগাল পাচ্ছিল না। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ স্থানীয় ছত্রী সব্জি মান্ডি এলাকার বাজারে হানা দিয়ে অজয় এবং জিতুকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ছত্রী সব্জি মান্ডির গোডাউন থেকেই অজয় ও জিতু প্রায় ৬০০ কেজি পেঁয়াজ এবং ১০০ কেজি আদা চুরি করেছিল, যার বাজারমূল্য ৬০ হাজার টাকা। সেই বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আর আদা তারা একেবারে জলের দরে বাজারে বিক্রি করছিল। চুরির কথা দুজনেই স্বীকার করেছে।  

তারা পুলিশকে জানিয়েছে, সম্প্রতি পেঁয়াজের দাম এতটাই বেড়ে গিয়েছিল যে, সাধারণ মানুষ তা কিনতে পারছিলেন না। সেকারণেই তারা সব্জি মান্ডির গোডাউন থেকে পেঁয়াজ চুরি করে তা সাধারণ মানুষের কাছে সস্তায় বিক্রি করছিল। জনকগঞ্জ থানার ওসি প্রীতি ভার্গব বলেন, মঙ্গলবার ধৃতদের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।