ভালোবাসা বোঝা বড় দায়,মৃত প্রেমিককে বিয়ে করলেন প্রেমিকা!সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই ছবি

1124

ওয়েব ডেস্ক, ২৫ অক্টোবর: ‘লাভ ফর সেক্স’, ‘তোকে আর ভাল লাগছে না’-এর যুগে এ এক ব্যতিক্রমী খবর। ঘনঘন প্রেমিক/প্রেমিকা বদলানোর মত এই খবর মধ্যে অনেকটা পার্থক্য রয়েছে। যারা নিজের ভালোবাসাটাকে জয় করতে জানে তাদের জন্য হয়তো খারাপ লাগবে। যারা ভালবেসে ভালবাসার মানুষের কাছে শপথ নেয় ‘তোমার সঙ্গে আমৃত্যু থাকব’, সেই প্রেম বা ভালোবাসার মানুষটা এই শপথ বাণীটা বাস্তবায়িত করে গেলেন এক প্রেমিকা। এমনি এক বিরল প্রেমের কথা জানবো আমরা।

ঘটনাটি ঘটেছে থাইল্যান্ডের এক প্রেমিকা তার প্রেমিককে বিয়ে করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু তাদের বিয়ের আগে হার্ট অ্যাটাক করে মৃত্যু হয় প্রেমিকের। তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় এসে সবাইকে অবাক করে মৃত প্রেমিকার হাতে আংটি পরিয়ে বিয়ে করে নিলেন ওই প্রেমিকা। সকলের চোখে জল নিয়ে এমন এক বিরল বিয়ের সাক্ষী থাকল একদল মানুষ। যেখানে এক বিয়ের পোশাকে নারী বিয়ের আঙটি পরালেন তাঁর মৃত প্রেমিককের হতে। বিয়ের পরই স্বামীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হল। কান্নায় ভেঙে পড়লেন স্ত্রী। শপথ নিলেন এ জীবনটা শুধু তার জন্যই থাকল। তবে কী ওই দেশের আইন ভারী কঠিন বিষয়।

জানা গেছে, থাইল্যান্ডের আইন অনুযায়ী এই বিয়ে স্বীকৃতি পেল না। কিন্তু মৃত প্রেমিককে বিয়ে করার ছবি দেখে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ে সাইটে দারুণ ভাবে স্বীকৃত হল। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিয়ে চোখের জলে ভেজা সেলাম পেল। সেই প্রেমিকার নাম নান থিপ্পাহারাট। তার প্রেমিক ফিয়াট হঠাৎ করে হার্ট অ্যাটাক হয়ে মারা যান। দুজনের বিয়ের কথা ঠিকঠাক ছিল। মৃত এসেও অবশ্য চার হাতের মিলনকে রুখতে পারল না। নান তাঁর ফেসবুকে লিখলেন, ‘আমি আমাদের বিয়ের কথা নিয়ে কত স্বপ্ন দেখতাম। স্বপ্নে দেখতাম আমি ওর হাতটা ধরে আছি। আমার স্বপ্ন সত্যি হল। ফিয়াট তুমি খুব থাকো।’

ভালবাসাকে জিতিয়ে দেওয়ার এই চোখে জল এনে দেওয়া বিয়েটা হল মধ্য থাইল্যান্ডের চাচেওইংশোয়া প্রদেশে। হতে পারে বিয়েটা আমাদের থেকে অনেক দূরের একটা জায়গায় হল। কিন্তু উৎপত্তিস্থলটা যেখানেই বিয়ের গভীরতাটা আমাদের মনের কম্পন ধরিয়ে দিল। প্রেম তুমি বেঁচে থাকো চিরকাল মানুষের মনে।