নজিরবিহীন ঘটনা ! ট্রেন লেট করায় ক্ষতিপূরণ পেল যাত্রী

663

ওয়েব ডেস্ক, ২২ অক্টোবরঃ নজিরবিহীন ঘটনা ঘটল ভারতীয় রেলে।ট্রেন লেটে চলায় ৯৫১ জন রেলযাত্রীরা পেতে চলেছেন ক্ষতিপূরণ। বেসরকারি উদ্যোগে চালানো প্রথম ট্রেন তেজস শনিবার দেরিতে চলায় এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হল।প্রায় তিন ঘণ্টা দেরি হয়েছে এই ট্রেনের।

লখনউ থেকে দিল্লিগামী তেজস এক্সপ্রেসের লখনউ ছাড়ার সময় ছিল সকাল ৬টা ১০ মিনিটে। ট্রেনটি ছাড়ে ৮টা ৫৫ মিনিটে। ফলে ট্রেনটি নির্ধারিত সময় ১২টা ২৫ মিনিটের বদলে দুপুর ৩টে ৪০ মিনিটে পৌঁছয়। দিল্লি থেকে লখনউগামী ট্রেনটিও দুপুর ৩টে ৩৫ মিনিটে না ছেড়ে ৫টা ৩০ মিনিটে রওয়ানা দেয়। ফলে একই দিনে দুদিকের যাত্রাতেই গন্তব্যে পৌঁছতে দেরি করে তেজস।

প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে আইআরসিটিসি’র চিফ রিজিওনাল ম্যানেজার অশ্বিনী শ্রীবাস্তব জানান, শনিবার তেজস এক্সপ্রেসের সওয়ার হওয়া যাত্রীদের কাছে ইতিমধ্যেই তাঁদের মোবাইল ফোনে একটি লিঙ্ক পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে যেখানে ক্লিক করলেই তাঁরা ক্ষতিপূরণ পেয়ে যাবেন।

তেজস এক্সপ্রেসের ক্ষেত্রে আইআরসিটিসি’র ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষিত নীতি অনুযায়ী, ট্রেনটি ছাড়তে দেরি হওয়া সত্ত্বেও যদি গন্তব্যে সঠিক সময় পৌঁছয় তাহলে যাত্রীরা ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারবেন না। কিন্ত শনিবার ট্রেনটির দু দিকেই দেরি হওয়ায় লখনউ থেকে ওঠা ৪৫১ জন যাত্রী এবং দিল্লি থেকে লখনউয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করা ৫০০ জন যাত্রী এই ক্ষতিপূরণ পাবেন। ক্ষতিপূরণের পরিমাণ যাত্রী পিছু ২৫০ টাকা বলে জানানো হয়েছে।  

তবে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সে ক্ষেত্রে রয়েছে বিশেষ কয়েকটি ধাপ। ট্রেন গন্তব্যে পৌঁছাতে ১ ঘন্টা দেরি করলে গ্রাহকরা পাবেন ১০০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ। দেরি হওয়ার সময় ২ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলে ট্রেনের তরফ থেকে যাওয়া ক্ষতিপূরণের অঙ্ক বেড়ে হয়ে যাবে ২৫০ টাকা।