বসিরহাটে যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যু,শোকের ছায়া এলাকায়

47

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এল এলাকায়। মনে করা হচ্ছে অভাব ও একাকিত্বের জেরেই আত্মঘাতী হয়েছে ওই যুবক। বসিরহাট মহকুমার মিনাখা ব্লকের হাড়োয়া থানার মোহনপুর অঞ্চলের উচিলদহগড় গ্রামের ঘটনা। বৃহস্পতিবার সকালে সবকিছু ঠিকঠাক ছিল প্রতিদিনের মতো বিকেলে ঘুমাতে যান তপন হালদার নামে ওই যুবক। কিন্তু পড়ে দেখা যায় ঘরের দরজা বন্ধ অবস্থায় শাড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো তাঁর।

বাড়ির লোক ডাকাডাকি করায় কোনো সাড়া শব্দ না মিললে হাড়োয়া থানায় খবর দেয়া হয়। হাড়োয়া থানার পুলিশ এসে ঝুলন্ত অবস্থায়  তপন হালদারের দেহ উদ্ধার করে। তপন ছিল পেশায় দিনমজুর। পুলিশ যুবকের দেহ উদ্ধার করে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ। জানা গেছে দীর্ঘদিন ধরে অভাবের কারণে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়। দীর্ঘদিন থেকে একদিকে সংসারের অভাব, অন্যদিকে একাতিত্ব, সব মিলিয়ে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। এরপরেই এই করুণ পরিণতি।