প্রয়াত হলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ফারুখ জাফর

86

ওয়েব ডেস্ক, ১৬ অক্টোবরঃ প্রয়াত হলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ফারুখ জাফর। গুলাবো সিতাবো ছবিতে বেগম চরিত্রে সকলের মন জয় করে নিয়েছিলেন তিনি। শুক্রবার রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যােগ করেন তিনি। মৃত্যুলকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। মনে করা হচ্ছে বার্ধক্য্জনিত অসুখেই প্রয়াত হয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী।গুলাবো সিতাবো ছবির চিত্রনাট্যয়কার জুহি চতুর্বেদী প্রকাশ করেছেন এই দুঃসংবাদ।

২০২০ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। সেই শেষবার পর্দায় দেখা গিয়েছিল ফারুখ জাফরকে। নিজের অভিনয় দক্ষতা দিয়ে অমিতাভ বচ্চন, আয়ুষ্মান খুরানাদের মতো তাবড় অভিনেতাদের ছাপিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। ছবিতে সেরা সহ অভিনেত্রী হিসেবে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডও পেয়েছিলেন তিনি।

চিত্রনাট্যতকার জুহি চতুর্বেদী লেখেন, ‘বেগম চলে গেলেন। ফারুখ জি, না আপনার মতো কেউ ছিলেন আর না হবেন। আপনার সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করার অনুমতি দিয়েছিলেন, তার জন্য্ মন থেকে ধন্যেবাদ। এবার আল্লাহর ওই দুনিয়াতে ভাল ভাবে থাকবেন।আত্মার শান্তি কামনা করি।’

দীর্ঘ অভিনয় জীবন ফারুখ জাফরের। ছিলেন জৌনপুরের জমিদার বংশের মেয়ে। মাত্র ১৬ বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে লখনউ চলে আসেন তিনি। লখনউ বিশ্ববিদ্যা লয় থেকে স্নাতক হয়েছিলেন ফারুখ জাফর। বিয়ে করেন স্বাধীনতা সংগ্রামী সৈয়দ মহম্মদ জাফরকে।

কিন্তু প্রথমেই অভিনয় জগতে পা রাখেননি তিনি। রেডিওতে কাজ শুরু করেছিলেন ফারুখ। অল ইন্ডিয়া রেডিওর প্রথম কর্মীদের মধ্যেক একজন ছিলেন তিনি। এরপরেই তাঁর বলিউডে আসা। উমরাও জান ছবির মাধ্য মে অভিনয়ে পা রেখেছিলেন তিনি। রেখার মায়ের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

এরপর আবার লম্বা গ্যা প। ২০ বছর পর ২০০৪ সালে শাহরুখ খানের স্বদেশ ছবিতে ফের দেখা মেলে ফারুখ জাফরের। এরপর একে একে পিপলি লাইভ’, ‘তনু ওয়েডস মনু’, ‘আম্মা কি বোলি’র মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।