করোনা অতিমারির মধ্যেও ভোট পরবর্তি হিংসা

175

বালুরঘাট, ২১ মেঃ করোনা অতিমারির মধ্যেও ভোট পরবর্তি হিংসা ভোটের ফলাফল বের হবার ২১ দিন পরও  অব্যহত। আজ সকালে বালুরঘাট শহরে  ধারালো অস্ত্র দিয়ে কয়েকজন দুষ্কৃতি ব্যাপক মারধোর করে এক বিজেপি কর্মীকে। গতকাল তার খোজে তার  বাড়িতেও হামলা চালায় তারা বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত ওই বিজেপি কর্মী হাসপাতালে ভর্তি। অভিযোগের তির তৃনমুল আশ্রিত দুষ্কৃতিদের দিকে। তৃনমুলের তরফে অস্বিকার করা হয়।ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকালে বালুরঘাট শহরের খাদিমপুরের রবিন্দ্রনগর এলাকার  বটতলা বাজারে।  বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি থাকা গুরুতর আহত  ওই  বিজেপি শক্তি কেন্দ্রের কর্মির নাম ছোটন মালাকার। বাড়ি  শহরের খাদিমপুর  এলাকার রবিন্দ্রনগর  পাড়ায়। এলাকায় উত্তেজনা।

যদিও তৃনমুলের জেলা কমিটির সদস্য সুভাষ চাকি সেই অভিযোগ অস্বিকার করে জানিয়েছেন ছেলেটি এলাকায় সমাজবিরোধী হিসেবে পরিচিত। স্থানিও বাসিন্দাদের ক্ষোভের শিকার সে। এর সাথে তৃনমুলের কোন সংযোগ নেই।

অপরদিকে মারধোরের ঘটনায় হাসপাতালে ভর্তি থাকা আহত  ছোটন মালাকারের অভিযোগ ভোটের পর থেকেই সে  হামলার ভয়ে ঘর ছেড়ে জেলা বিজেপি কার্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। রাতে জানতে পারি তার খোজে তৃনমুল আশ্রিত  লোকজন তার খোজে তার বাড়িতে হামলা চালায়।  পরিবারের কয়েকজনকে শারিরিক ভাবে হেনস্থাও করে তারা। খবর পেয়ে আজ সকালে পরিবারের খোজ খবর নিতে ও তাদের আহারের জন্য বাজার করে দিতে এলাকায় যাই। সেইমত এলাকার বটতলা বাজারে বাজার করতে গেলে তৃনমুলের কর্মীরা ধারালো অস্ত্র শস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঝাপিয়ে পরে ব্যাপক মারধোর চালায়। তাদের ধারালো অস্ত্রের কোপে তার মাথা ফেটে গিয়ে রক্তচফ ঝরতে থাকে। এমতবস্থায় কোনরকমে তাদের হাত ছাড়িয়ে আমি পালিয়ে প্রানে বাচি বলে ছোটন জানিয়েছে।