ভোটার লিস্টে নাম তুলতে কি কি লাগে, প্রশাসনিক বৈঠকে জানালেন মমতা

612

বিশ্বজিৎ সরকার, শিলিগুড়িঃ ভোটার লিস্টে নাম তুলতে গেলে ঠিক কী কী নথি প্রয়োজন হয়, তার তালিকা তুলে ধরলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ উত্তরবঙ্গের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে ভোটার তালিকায় গুরুত্ব দিয়ে করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ একই সঙ্গে জানিয়ে দিয়েছেন ঠিক কোন কোন নথি দেখালে ভোটার তালিকায় নাম তোলা যাবে৷ তালিকা জানতে চেয়ে দিন মুখ্যমন্ত্রী, সৌরভ চক্রবর্তীকে বলতে বলেন৷ সরকারি আধিকারিককে একই প্রশ্ন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্নের জবাব দেন ওই আধিকারিক জানান,আধার কার্ড,ভোটার কার্ড,ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকলে ভোটার কার্ডের নাম তোলা যায়৷ এরপর মুখ্যমন্ত্রী ওই আধিকারিককে থামিয়ে নিজেই বলতে শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বলেন,‘‘যেকোনও একটা, আধার কার্ড, প্যান কার্ড হোক, সামাজিক সুরক্ষার কার্ড হোক, ড্রাইভিং লাইসেন্স, স্কুলের সার্টিফিকেট হোক, বাড়ির ভাড়াটের হোক, বাড়িওয়ালা হোক, দোকানদার হোক, রিক্সাওয়ালা হোক, টোটোআওলা হোক, গাড়িওয়ালা হোক, তাঁর কাছে যে কোনও একটা নথি থাকলেই হবে৷

এরপর আইসি, বিডিও নির্দেশ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘আপনারা ভোটার তালিকা তৈরি করার সময় জায়গায় জায়গায় বসবেন তো ? ভোটার লিস্ট তৈরি করতে গেলে৷ ওই ডাইরির ওপর ভিত্তি করে করবেন ৷ লোকজনকে বিভ্রন্ত করবেন না ৷ জনগণনা হবে৷ যে সংস্থাকে দিয়ে জেলা শাসকরা কাজটা করিয়ে থাকে জনগণনা বা ভোটার লিস্টের জন্য, তাদের মধ্যে অনেক ডালমে অনেক কালা আছে৷ তারা অনেকে যায় না ৷ আগের যা পদ্ধতি আছে তা বাতিল করে দিতে হবে৷ নতুন করে নিয়ম তৈরি করুন৷ নতুন ব্যবস্থাপনায় চালু করুন ৷ আমার মনে হচ্ছে এটা ঠিক হচ্ছে না ৷

আপনারা যাদের দিয়ে করান তারা কম্পিউটারের নাম তোলে ভুল৷ কম্পিউটার থেকে বাদ দেওয়া হয়৷ যাকে যে কাজটা দেবেন,সেই কাজটা দায়িত্ব নিয়ে করতে হবে৷ যদি একটা নাম ইচ্ছাকৃতভাবে কেটে দেওয়া হয়, আমি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব৷ ব্যবস্থাটা হবে লোককে অপদস্থ করা৷ আর তার নাম কাটা হবে তার অপরাধ৷ এটা মাথায় রাখতে হবে৷’’