‘হ্যাঁ আমি পাকিস্তানি, যা করার করে নিন’: অধীর চৌধুরী

463

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ জানুয়ারিঃ সিএএ-র প্রতিবাদে ফের একবার বিজেপির বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন কংগ্রেসের লোকসভায় নেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী।তিনি বলেন, হ্যাঁ আমি পাকিস্তানি।মোদী- অমিত শাহ যা করার করে নিক।অধীর অভিযোগ করেছেন যা তাঁরা বলবেন তাই মেনে নিতে হবে দেশবাসীকে নইলে তাঁকে দেশদ্রোহী বলা হবে।

বৃহস্পতিবার উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটে সভা করতে গিয়ে বৃহস্পতিবার সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে অধীর বলেছেন, ভারত নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহের পৈতৃক সম্পত্তি নয়। কোনও ভাবেই সিএএ-কে কংগ্রেস সমর্থন করবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। তাই নিজেকে পাকিস্তানি বলে দাবি অধীর বলেছেন বিজেপি যা করার করেনিক ভয় পাই না।বিজেপিকে কটাক্ষ করে অধীর চৌধুরী বলেন, দিল্লিতে রঙ্গবিলা চলছে। অধীরবাবুর অভিযোগ, মোদী- অমিত শাহ যা বলবেন তাই মেনে নিতে হবে, নইলে তাঁকে দেশদ্রোহী বলা হচ্ছে। অধীর চৌধুরী বলেন, আমরা কোথায় আছি? আমাদের সেটাই করতে বলা হয়, যেটা মোদী- অমিত শাহ বলেন। আমি এটা স্বীকার করতে পারব না। এই দেশ নরেন্দ্র মোদী- অমিত শাহের পৈতৃক সম্পত্তি না। এটা ওই দুজনকে বুঝতে হবে।

পুলওয়ামা ভয়াবহ জঙ্গি হামলার বিষয়ে নতুন করে তদন্তের দাবি করেছিলেন অধীর চৌধুরী। পুলওয়ামা হামলায় পাকিস্তান না অন্য কারও হাত রয়েছে ? তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অধীর চৌধুরী। এরপরেই বিজেপি অভিযোগ তুলেছিল, পাকিস্তানের ভাষায় কথা বলছে কংগ্রেস।

প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখরকেও আক্রমণ করেছেন অধীর চৌধুরী। রাজ্যপাল অর্ঝুলের লক্ষ্যভেদ নিয়ে যে মন্তব্য করেছিলেন তার সমালোচনা করেছেন অধীর। রাজ্যপাল মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন বলে আক্রমণ করেছেন অধীর। অর্জুনের বাণে যদি পরমাণু থাকে তাহলে তাই নিয়ে এত গবেষণার কী প্রয়োজন ছিল। ধনখরের মতো লোক থাকলে পশ্চিমবঙ্গ এতোদিনে পাঁচটি নোবেল পেয়ে যেত বলে কঠাক্ষ করেছেন অধীর।