প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে যুবতীর কয়েক লক্ষ টাকা,সোনা সহ সর্বস্ব হাতিয়ে নিয়ে চম্পট প্রেমিক

375

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনাঃ প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে যুবতীর কয়েক লক্ষ টাকা, সোনা সহ সর্বস্ব হাতিয়ে নিয়ে চম্পট প্রেমিক। ঘটনাটি ঘটেছে বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার হাড়োয়া অঞ্চলের পিলখানা গ্রামে। ঘটনায় হাড়োয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই যুবতী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

জানা গেছে, ২০১৬ সালে ফোনে আলাপ হয় বেড়াচাঁপা ডঃ শহীদুল্লাহ কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী পারভিনা খাতুন এর সঙ্গে হুগলির ডানকুনির বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন মোল্লার সঙ্গে আলাপ হয়। তারপর থেকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শুরু হয় প্রেম কাহিনী চলতে থাকে। কয়েকবার দেখাও করেন তারপর যুবক একের পর এক অজুহাত দিয়ে টাকার দাবি করেন প্রেমিকার কাছে।

শুরু হয় একের পর এক প্রতারণা প্রেমিকা বিশ্বাস করে। প্রথমে হাড়োয়ায় স্টেট ব্যাংকের মাধ্যমে যুবতী আড়াই লক্ষাধিক টাকা যুবকের অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার করেন। তারপর যুবক বাড়িতে আসেন সেখান থেকেও নগদ কিছু টাকা এবং সোনার গহনার নিয়ে যান প্রেমিক সহ সব মিলিয়ে সাড়ে তিন লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেন যুবতীর কাছ থেকে।

যুবতীর বাবা জোবেদ আলী দিনমজুর করে যুবতীকে বিয়ে দেওয়ার জন্য জোগাড় করেছিলেন তার সেই টাকা সর্বস্ব হাতিয়ে নিল। তারপর যুবতীর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন প্রেমিক। এবং যুবতীর মোবাইল নাম্বার ব্লক করে দিয়েছেন এমনকি তার সিমকার্ড দুটিও বদল করে দিয়েছে প্রেমিক। সব দেখে যুবতীর বাবা মা বাড়ি থেকে বের করে দেয় যুবতীকে।

যুবতীর পেট চালাতে একটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করতে হয়। এমনকি তার কলেজ ও বন্ধ হয়ে যায়। ঘটনায় হাড়োয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই যুবতী। ঘটনার পেছনে কোন বড়োসড়ো প্রতারনা চক্রের যোগসূত্র আছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।